প্রিয়জনের শরীরের গন্ধে হবে আরামের ঘুম

সারাদিন যেভাবেই কাটুক না কেন প্রতিদিন রাতে বিছানায় গেলেই আপনি বিরক্ত হয়ে পড়েন। কারণ অনেক চেষ্টা করলেও কিছুতেই ঘুম আসে না। ইদানিং ঘুমের সমস্যার সমাধানে অনেকেই অল্পবিস্তর ঘুমের ওষুদ খান, কিন্তু তার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া রয়েছে। তবে সম্প্রতি আরামের ঘুমের এমন এক উপায় জানা গেছে যা আপনাকে চমকে দেবে।

গবেষণায় জানানো হয়েছে, স্বামী বা স্ত্রীর শরীরের গন্ধ আরামের ঘুম নিয়ে আসবে। যাদের ঘুমের সমস্যা রয়েছে তারা এই পদ্ধতি যাচাই করে দেখতে পারেন। ঘুমানোর সময় স্বামী বা স্ত্রীর বদলে তার ব্যবহৃত জামা বুকে নিয়ে বা গায়ে দিয়ে শুতে যান। কানাডার ইউনিভার্সিটি অফ ব্রিটিশ কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ফ্রান্সিস চেন জানিয়েছেন, ছোটরা যেমন মায়ের গায়ের গন্ধে ঘুমিয়ে পড়েন একই ভাবে প্রিয়জনের গায়ের গন্ধ বড়দের চোখে ঘুম আনতেও সাহায্য করে।

এমনিতেই ঘুমের ক্ষেত্রে সুগন্ধের একটি বড় ভূমিকা আছে। তার ওপর কাছের মানুষের গায়ের গন্ধ মেন প্রশান্তি আনে গবেষণায় আরও দেখা গেছে, রোমান্টিক সম্পর্ক এবং ঘনিষ্ঠ শারীরিক সম্পর্ক শুধু শরীর নয়, মনকেও ভালো রাখে। এতে রাতের ঘুম গাঢ় হয়। কারণ, মানসিক প্রশান্তি শরীরেও স্বস্তি আনে। তাই যারা দীর্ঘদিন রোমান্টিক সম্পর্কে আবদ্ধ বা যেসমস্ত দম্পতির মধ্যে সুস্থ, স্বাভাবিক শারীরিক সম্পর্ক রয়েছে তাদের চট করে ঘুমের ব্যাঘাত ঘটে না।

সমীক্ষার সত্যতা যাচাই করতে তিন মাসের একটি পরীক্ষা চালানো হয় সমস্ত লিঙ্গের যুগলের মধ্যে। তার আগে তাদের প্রিয়জনকে শারীরিক কসরত, কোনো বিশেষ সুগন্ধি যেমন পারফিউম, কোলন ইত্যাদি না ব্যবহার করতে বলা হয়। যাতে তার সুতির পোশাকে শুধুই তার গায়ের গন্ধ থাকে। সেই গন্ধ অটুট রাখতে তাদের পোশাক সিল প্যাকেটে রেখে ফ্রিজের মধ্যে রাখারও ব্যবস্থা করা হয়।

এরপরে যুগলের দ্বিতীয় সদস্যকে তার প্রিয়জনের এবং অন্য লোকের ব্যবহৃত শার্ট দেওয়া হয়। অপরিচিতের শার্ট কিন্তু ঘুম আনতে পারেনি। কিন্তু চেনা গায়ের গন্ধ পেতেই তিনি জলদি ঘুমিয়ে পড়েছেন। প্রতি সপ্তাহে সেই ঘুম বাড়তে বাড়তে দেখা গেছে। একসময় ঘুমের সমস্যা কেটে গিয়ে স্বাভাবিকতা চলে এসেছে।

স্বামীর শার্ট দেওয়ার পাশাপাশি স্ত্রীর কব্জিতে বেঁধে দেওয়া হয়েছিল মনিটর। যা থেকে প্রমাণিত হয়েছে, সুখেই ঘুমিয়েছেন তারা। স্বামীর শার্ট গায়ে পরে বা বালিশে জড়িয়ে তাদের মনে হয়েছে প্রিয়জন তাদের কাছেই আছেন। ফলে, তাদের ঘুমের মাত্রা বেড়েছে বই কমেনি।

অনেকেরই বাইরে গেলে বা চেনা বিছানা না পেলে ঘুম হয় না। তারা সঙ্গে প্রিয়জনের ব্যবহৃত জামা রাখতে পারেন। রাতে সেটি নিয়ে শুলে দেখবেন রাত গড়িয়ে কখন ভোর হয়েছে, আপনি মধ্যে টেরই পাননি!

About admin

Check Also

চুলের সমস্যায় নাজেহাল? জেনে নিন সমাধানের উপায়

সাজার জন্য আয়নার সামনে দাঁডিয়ে চুলে চিরুনি দিতেই মুখটা বেজার হয়ে গেল। গোছা গোছা চুল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *